নভে. 212013
 

আবূ কুরায়ব ও মূসা ইবনু হিযাম (রহঃ) আবূ হুরায়রা (রাঃ) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূল (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) বলেছেন, তোমরা নারীদেরকে উত্তম উপদেশ দিবে। কেননা নারী জাতিকে পাঁজরের হাড় দ্বারা সৃষ্টি করা হয়েছে। আর পাঁজরের হাড়গুলোর হাড়টি অধিক বাঁকা। তুমি যদি তা সোজা করতে যাও, তাহলে তা ভেঙ্গে ফেলবে আর যদি ছেড়ে দাও, তাহলে সব সময় তা বাকাই থেকে যাবে। কাজেই নারীদের সাথে উপদেশপূর্ণ কথাবার্তা বলবে।

গ্রন্থঃ সহীহ বুখারি অধ্যায়ঃ আম্বিয়া কিরাম (আঃ) হাদিস নাম্বারঃ ৩০৯৬

নভে. 212013
 

বিশ্‌র ইবনু মুহাম্মদ (রহঃ) আবূ হুরায়রা (রাঃ) সূত্রে নাবী (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) থেকে অনুরূপ বর্ণিত আছে। অর্থাৎ নাবী (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) বলেছেন, বনী ইসরাঈল যদি না হত তবে গোশত দুর্গন্ধযুক্ত হতো না। আর যদি হাওয়া আলাইহি ওয়া সাল্লাম না হতেন তবে কোন নারীই তাঁর স্বামীর খেয়ানত করত না (১)। ১ মূসা আলাইহি ওয়া সাল্লাম -এর সময় বনী ইসরাইল আল্লাহ তা’আলার আদেশ অমান্য করে ‘সালওয়া’ নামক এক প্রকার পাখির গোশতে পচন ধরে। এ ঘটনা থেকেই গোশতে পচনের সূত্রপাত হয়। হাদিসের দ্বিতীয় অংশে আদম ও হাওয়ার নিষিদ্ধ বৃক্ষের ফল খাওয়ার ঘটনার দিকে ইশারা করা হয়েছে। আদম আলাইহি ওয়া সাল্লাম -এর ফল খাওয়ার ব্যাপারে স্ত্রী হাওয়ার ভুমিকা ও প্রভাব কম ছিল। আদি-মাতা হাওয়ার ভুমিকা স্বভাবত নারী জাতি এখনও বহন করে যাচ্ছে। এ দু’টো ঘটনাই হাদিসের উভয় বাক্যের তাৎপর্য। (আইনী)

গ্রন্থঃ সহীহ বুখারি অধ্যায়ঃ আম্বিয়া কিরাম (আঃ) হাদিস নাম্বারঃ ৩০৯৫